মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১ ৭ বৈশাখ ১৪২৮

মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১

কোরআন শরীফ ছেঁড়ায় লোহাগাড়ায় আরেকজন গ্রেপ্তার
প্রকাশ: রোববার, ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১০:৫০ এএম আপডেট: ০৭.০২.২০১৬ ১০:৫৪ এএম  Count : 619

লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি ও বড়হাতিয়া এলাকার ৭টি মসজিদ ও ২টি মাজারে পরিকল্পিতভাবে পবিত্র কোরআন শরীফের পাতা ছেঁড়ার দায়ে পুনরায় মিজানুর রহমান (১৯) নামে অপর একজনকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। সে উপজেলার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের হাটখোলা মুড়া এলাকার মো. নুরুল কবিরের পুত্র। সে শিবিরের একজন সক্রিয় কর্মী বলে পুলিশ জানান।
এ ব্যাপারে গত ৬ ফেরুয়ারি সকাল আনুমানিক সাড়ে ১১ টায় লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শাহজাহান পিপিএম (বার) তাঁর কার্যালয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে এক প্রেস ব্রিফিং করেন। এতে জানা গেছে, শিবিরের গোপন বৈঠকের পরিকল্পনামতে গত ১০ জানুয়ারি চুনতি সিরাতুন্নবী (স.) মাহফিলের শেষ দিনের আখেরি মোনাজাতের পূর্বে অর্থাৎ ভোরে মাহফিল থেকে বের হয়ে উক্ত আসামি তার সহযোগীদের নিয়ে চুনতি বাজার জামে মসজিদের ৭/৮টি এবং অন্যান্য মসজিদ-মাজারে অনুরূপভাবে কোরআন শরীফের পাতা ছিঁড়ে ফেলে। এ ঘটনায় চুনতি পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. নুরুল ইসলাম এজাহার নামীয় ১০জনসহ অজ্ঞাতনামা ৩৫/৪০জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রুজু করেন। গত ৫ ফেব্রুয়ারি রাত ১০ টায় পুলিশ এলাকাবাসীর সহায়তায় অভিযান চালিয়ে শিবির কর্মী মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন।
এ ব্যাপারে লোহাগাড়া থানার ওসি মো. শাহজাহান পিপিএম (বার) জানান, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগিয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটানোর জন্য পরিকল্পিতভাবে ঘটনাটি ঘটানো হয়েছে। কিন্তু পুলিশের বলিষ্ঠ ভূমিকা ও সচেতনতার কারণে তাদের নাশকতার পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়ে যায়। তিনি আরো জানান, পবিত্র কোরআন শরীফের পাতা ছেঁড়ার ঘটনায় গত ২ ফেব্রুয়ারি শিবিরের সাথী মো. জাকারিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার স্বীকারোক্তি মতে গত ৫ ফেব্রুয়ারি একই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শিবির কর্মী মিজানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, এঘটনার সহিত জড়িতরা কেউ আইনি ব্যবস্থা থেকে রক্ষা পাবে না। তাদেরকে অবশ্যই আইনের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।


আরও সংবাদ   বিষয়:  কোরআন শরীফ   গ্রেপ্তার   লোহাগাড়া  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক ও সম্পাদক :---
"মা নীড়" ১৩২/৩ আহমদবাগ, সবুজবাগ, ঢাকা-১২১৪
ফোন : +৮৮-০২-৭২৭৫১০৭, মোবাইল : ০১৭৩৯-৩৬০৮৬৩, ই-মেইল : [email protected]