মঙ্গলবার ৫ জুলাই ২০২২ ২১ আষাঢ় ১৪২৯
শিরোনাম: মোহসিন আউলিয়া রহ. মাজারে ঈদে মিলাদুন্নবী দ. উপলক্ষ্যে খাবার বিতরণ       সাম্প্রতিক প্রেক্ষাপটে কারবালার চেতনা       সাইয়্যেদুনা উসমান গণী যুন্নুরাঈনঃজীবন-কর্ম-শাহাদাৎ       সুলতান মুহাম্মদ ফাতেহ'র কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়াভিজান       যুদ্ধবিরতি হলেও আরো যা যা হয় নাই-       ফিলিস্তিনিদের রাজনৈতিক ঐক্য বিনাশে গাজায় হামলা       আরবদের উপর যায়নবাদীদের নতুন হামলা কেন?      
চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী ইমাম সমাবেশ
ইমামদের দাবি :পিস টিভির বাংলাদেশি বক্তাদের গ্রেপ্তার করুন
সুন্নীবার্তা ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ১৬ জুলাই, ২০১৬, ৬:০৭ পিএম |

ইমামদের দাবি :পিস টিভির বাংলাদেশি বক্তাদের গ্রেপ্তার করুন

ইমামদের দাবি :পিস টিভির বাংলাদেশি বক্তাদের গ্রেপ্তার করুন

জঙ্গিবাদ ছড়ানোর অভিযোগে বন্ধ করে দেওয়া পিস টিভির বাংলাদেশি বক্তাদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রামের ইমামরা।

চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে জেলা প্রসাশক মোজবাহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে ইমাম -খতিবগণের সাথে সন্ত্রাস ও জঙ্গী হামলা প্রতিরোধ বিষয়ে মতবিনিময় সভায় তারা এ দাবি জানান ৷

শনিবার চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী ইমাম সমাবেশে এ দাবি জানান নগরীর ১৬০টি মসজিদের খতিব ও ইমাম।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন এই ইমাম সমাবেশের আয়োজন করে।

পিস টিভির বক্তাদের গ্রেপ্তারের পাশাপাশি পিস পাবলিকেশন, পিস স্কুল, পিস ক্লাবসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোও বন্ধের আহ্বান জানান তারা।
 
সভায় বলা হয়, সন্ত্রাস দমনে আলিমদের ভূমিকা অন্যান্য জন সম্পৃক্ত ব্যাক্তির চেয়ে বেশি কিন্তু সে তুলনায় সরকারীভাবে আলিমদের মূল্যায়ণ নেই বললে চলে ৷ যা আছে তাও ঐ জঙ্গী মদদদাতাদের দখলে ৷সরকার বিপদে পড়লে আলিমদের মূল্যায়ণ বাড়ে আবার পরিস্থিতির উন্নতি ঘটলে আলিমদের পাত্তা না দেয়া প্রসঙ্গে ডিসি সাহেবকে বলা হয়েছে ৷
আরো বলা হয়, সরকারি মসজিদ মাদ্রাসা থেকে আহলে হাদীস,জামাআত -ওয়াহাবী ইমামদের বহিষ্কার করতে হবে ৷ এরা সরকারী টাকা খেয়ে, সরকারের দেয়া সুযোগ -সুবিধা ভোগ করে গোপনে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে সরকারকে বিপাকে ফেলছে ৷ এদেরকে চব্বিশ ঘন্টা নজরে রাখতে হবে ৷ পিস টিভি বন্ধ হওয়াতে ওলামারা সরকারকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ৷ কিন্তু পিস টিভি বন্ধ হলেই সন্ত্রাস বন্ধ হয়ে যাবে একথা ঠিক নয় বরং ঐ পিস ওয়ালাদের পত্রিকা,ম্যাগাজিন,পাবলিকেশন্স,ব্যবসা -বাণিজ্য,মাদরাসা,মসজিদকে সরকারের নজরদারিতে রাখতে হবে ৷

কেউ কেউ জঙ্গিদেরকে প্রচলিত আইনে শাস্তি না দিয়ে ইসলামি আইনে শাস্তি দেয়ার পক্ষে মত দেন ৷কোন এক বক্তা বলেন,জাতিয় মসজিদের বয়ানগুলো সরাসরি টেলিভিশনে প্রচার করলে জাতি জঙ্গি তৎপরতাকে নিরুৎসাহিত করবে সচেতন হবে।

ইমাম সমাবেশে অংশ নেওয়া কালুশাহ সিনিয়র আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবুল কালাম আমেরি বলেন, পিস টিভিতে বাংলাদেশি যারা বক্তব্য দিতেন তারা আগে বক্তব্য রাখতেন জামায়াত নিয়ন্ত্রিত ইসলামী টিভিতে।

তিনি বলেন, সেটা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর তারা দিগন্ত টিভিতে অনুষ্ঠান করত। এটাও যখন বন্ধ হয়ে গেল তারা জায়গা করে নিল পিস টিভিতে।

“এখন পিস টিভি বন্ধ। তাদেরকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় না আনলে শিগগির তারা এনটিভি ও আরটিভি’র চ্যানেলে গিয়ে ইসলামের নামে বক্তব্য রাখবে। তাই অতি সত্ত্বর তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে হবে।”

তিনি ইসলামী আইনে জঙ্গিদের বিচারের দাবি জানিয়ে বলেন, কোরআনে দুনিয়াতে সন্ত্রাস সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির কথা আছে। জঙ্গিদের ইসলামের আলোকে তাদের কৃতকর্মের শাস্তি দিলে তাদের অপরাধ প্রবণতা কমে আসবে।

নগরীর কাটগড় ধানিপাড়া জামে মসজিদের খতিব রফিকুল ইসলাম বলেন, ইসলামের অপব্যাখ্যা দেওয়ায় অনেক আগে আলেমরা জাকির নায়েকের পিস টিভি বন্ধে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল।।দেরিতে হলেও সে দাবি পূরণ হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, শুধু পিস টিভি বন্ধ করলে হবে না, পিস টিভির সাথে সংশ্লিষ্ট পিস পাবলিকেশন, পিস স্কুল ও পিস ক্লাবও বন্ধ করতে হবে।

পাশাপাশি জঙ্গিবাদ দমন করতে গিয়ে সাধারণ মানুষের যাতে কোন ক্ষতি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখার জন্য তিনি সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।

নগরীর বন্দর এলাকার হাশেম সওঃ জামে মসজিদের খতিব জসিম উদ্দিন তৈয়বী বলেন, বাংলাদেশ যতদিন থাকবে ততদিন পিস টিভিও বন্ধ রাখতে হবে।

পিস টিভি ইসলামকে কলুষিত করছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, যাদের বক্তব্য পিস টিভিতে প্রচার করা হত তাদের নজরদারিতে রাখতে হবে। প্রয়োজনে রিমান্ডে নিতে হবে।

কোনো মসজিদে কেন্দ্রীয় অভিন্ন খুতবার বাইরে বক্তব্য রাখা হচ্ছে কিনা সেটাও নজরদারি করার জন্য তিনি সরকারকে পরামর্শ দেন।

ইমাম সমাবেশে নগরীর ১৬০টির বেশি মসজিদের খতিব অংশ নেন।

সমাবেশে আলেমরা ইসলামের সঠিক ব্যাখ্যা যাতে সবার কাছে পৌঁছুয় সেটা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

সমাবেশে জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন, “পিস টিভিতে কারা বক্তব্য রাখত সে ব্যাপারে আমরা খোঁজখবর নেব। ইমামদের সাজেশনগুলো আমরা বাস্তবায়নের চেষ্টা করব।”

ইসলামী ফাউন্ডেশন চট্টগ্রামের পরিচালক আবুল খায়ের মো. তারেক শাহ বলেন, “চট্টগ্রামে নয় হাজার ১০টি মসজিদ রয়েছে। আমরা আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে অভিন্ন খুতবা মসজিদে পৌঁছে দিতে সক্ষম হব।”

ইমাম সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেনজিদ জমিয়তুল ফালাহ’র সিনিয়র ইমাম নুর মোহাম্মদ সিদ্দিকী, ছোবহানিয়া আলীয়া মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ জুলফিকার আলী ও কাতালগঞ্জ সেন্ট্রাল জামে মসজিদের খতিব আমির হোসেন বিলালী।








সর্বশেষ সংবাদ
মোহসিন আউলিয়া রহ. মাজারে ঈদে মিলাদুন্নবী দ. উপলক্ষ্যে খাবার বিতরণ
সাম্প্রতিক প্রেক্ষাপটে কারবালার চেতনা
সাইয়্যেদুনা উসমান গণী যুন্নুরাঈনঃজীবন-কর্ম-শাহাদাৎ
সুলতান মুহাম্মদ ফাতেহ'র কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়াভিজান
যুদ্ধবিরতি হলেও আরো যা যা হয় নাই-
ফিলিস্তিনিদের রাজনৈতিক ঐক্য বিনাশে গাজায় হামলা
আরবদের উপর যায়নবাদীদের নতুন হামলা কেন?
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
অগণিত কারামতের ধারক গাউসুল আ’যম (কলাম -১)
লাইলাতুল বরাতের প্রামাণ্যতা ও তাৎপর্য
ইসলামে কাব্য, কবিতা, কাব্য চর্চা : না'তে রাসূল "মীলাদ শরিফ" কবিতার নাম
শা’বান মাস ও শবে বরাতের তাৎপর্য
দুরুদ শরীফ পাঠের ফজিলত
রমজানের রোযার ফজিলত ও করণীয়
"হায়াত মউত কবর হাশর" কিতাব বিতরণ
প্রকাশক ও সম্পাদক :---
"মা নীড়" ১৩২/৩ আহমদবাগ, সবুজবাগ, ঢাকা-১২১৪
ফোন : +৮৮-০২-৭২৭৫১০৭, মোবাইল : ০১৭৩৯-৩৬০৮৬৩, ই-মেইল : [email protected]